পশ্চিমবঙ্গসব খবর

পৌষের বৃষ্টিতে ৩ ডিগ্রি পারদ পতন, জবুথবু কলকাতা

দফায় দফায় বৃষ্টির জেরে এক ধাক্কায় ৩ ডিগ্রি কমে গেল কলকাতার তাপমাত্রা। শুক্রবার শহরের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১২.৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস। গত ২৪ ঘণ্টায় সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ২০.৩ ডিগ্রি সেলসিয়াসের কাছাকাছি, যা স্বাভাবিকের থেকে প্রায় ছয় ডিগ্রি কম। বৃহস্পতিবার কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১৫.৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস।  

এ দিন সকালেও আকাশের মুখ ভার। ভোরের দিকে কুয়াশাও ছিল বেশ। কোথাও কোথাও সামান্য বৃষ্টিও হয়েছে। ফলে আরও জাঁকিয়ে বসেছে শীত। আলিপুর আবহাওয়া দফতর জানিয়েছে, আগামী ২৪ ঘণ্টায় দুই ২৪ পরগনা এবং নদিয়াতে হালকা বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। বিক্ষিপ্ত বৃষ্টি হতে পারে কলকাতাতেও। বড়দিনে কলকাতায় ভালই ঠান্ডা মালুম হয়েছিল। কিন্তু বৃহস্পতিবার তাপমাত্রা এক ধাক্কায় অনেকটাই উঠে প্রায় ১৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস হয়। কিন্তু বৃষ্টির জের ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ফের তাপমাত্রার পতন হয়। গত ২৪ ঘণ্টায় কলকাতায় বৃষ্টি হয়েছে ১১.৮ মিলিমিটার। সঙ্গে ছিল উত্তুরে হাওয়ার দাপটও। আলিপুর জানাচ্ছে, আগামী ৪৮ ঘণ্টায় জাঁকিয়ে ঠান্ডা পড়বে রাজ্য জুড়ে।

বৃহস্পতিবার থেকেই আকাশ মেঘলা ছিল। সঙ্গে ঝিরঝিরে বৃষ্টিও হয়েছে কলকাতা-সহ দক্ষিণবঙ্গের কয়েকটি জেলায়। সন্ধ্যা থেকে দফায় দফায় হালকা বৃষ্টি হওয়ায় পারদ অনেকটাই নেমে যায়। এত দিন পশ্চিমী ঝঞ্ঝার জেরে বাধা পাচ্ছিল উত্তুরে হাওয়া। ফলে ঠান্ডাটা সে ভাবে অনুভূত হচ্ছিল না রাজ্যবাসীর। ঝঞ্ঝাটা সরতেই হু হু করে পাহাড় ও সমতলে উত্তুরে হাওয়া ঢুকতে শুরু করেছে। জেলাগুলোতেও পারদ নিম্নমুখী। এ দিন আসানসোলে সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াস। দার্জিলিঙের তাপমাত্রা ২ ডিগ্রিতে নেমে গিয়েছে। কৃষ্ণনগরের তাপমাত্রা ১৩ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

এ বার শুরু থেকেই একটা ঝিমুনি ছিল শীতের। আরব সাগরে সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড় ‘পবন’-এর কারণে শীত বাধা পাচ্ছিল। ফলে ইনিংসের শুরুতেই দাপিয়ে ব্যাটিং করতে পারেনি শীত। কিন্তু ডিসেম্বরের তৃতীয় সপ্তাহ পেরোতে না পেরোতেই উত্তুরে হাওয়া ঢুকতে শুরু করে। ফলে এক ধাক্কায় কলকাতা-সহ উত্তর ও দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলিতে তাপমাত্রা অনেকটাই নেমে যায়। শৈত্যপ্রবাহও চলে গাঙ্গেয় বঙ্গের বেশ কয়েকটি জেলায়। কিন্তু সেই ঠান্ডার আমেজ উপভোগ করতে না করতেই ফের পশ্চিমী ঝঞ্ঝা ও বঙ্গোপসাগরের উপর সৃষ্ট উচ্চচাপ বলয় শীতের পথে বাধা হয়ে দাঁড়ায়। ফলে তাপমাত্রা ফের ঊর্ধ্বগামী হয়। কিন্তু সেই ঝঞ্ঝা ও উচ্চচাপ সরে যাওয়াতেই ফের উত্তুরে হাওয়ার দাপট শুরু হয়েছে গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গে। তাপমাত্রাও নামতে শুরু করেছে।

Total Page Visits: 309 - Today Page Visits: 1

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Shares