যুদ্ধের আবহ, দেশের নাগরিকদের সুরক্ষায় দুটি যুদ্ধজাহাজ পাঠাল ব্রিটেন

লন্ডনঃ যুদ্ধের পরিস্থিতি বিশ্বে। চরমে উঠছে আমেরিকা এবং ইরানের মধ্যে সংঘাত। গত ২৪ ঘন্টায় ইরাকে মার্কিনীদের মধ্যে একের পর এক হামলা চালিয়েছে তেহরান। যা নিয়ে চরমে উঠছে পরিস্থিতি।

আমেরিকা এবং ইরানের মধ্যে একদিকে যখন উত্তেজনা তুঙ্গে, ঠিক সেই সময় দুটি যুদ্ধ জাহাজ পাঠাল ব্রিটেন।

ব্রিটেন জানিয়েছে। তাদের তেলবাহী জাহাজগুলিকে পারস্য উপসাগরের হরমুজ প্রণালীতে এস্কর্ট করে নিয়ে যাবে ব্রিটেনের রাজকীয় নৌবাহিনীর যুদ্ধজাহাজ। এজন্য শনিবার তারা দুটি যুদ্ধজাহাজ পারস্য উপসাগরে পাঠিয়েছে।

ব্রিটিশ সরকার জানিয়েছে, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ইরানের শীর্ষ পর্যায়ের সেনা আধিকারিকরা মেজর জেনারেল কাসেম সোলায়মানিকে হত্যার পর আমেরিকা এবং ইরানের মধ্যে যে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়েছে তার প্রেক্ষাপটে লন্ডন এহেন সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

ব্রিটিশ প্রতিরক্ষামন্ত্রী বেন ওয়ালেস জানিয়েছেন, তিনি এরই মধ্যে এইচএমএস মন্টরোজ এবং এইচএমএস ডিফেন্ডার যুদ্ধজাহাজকে ব্রিটিশ পতাকা রয়েছে এমন সমস্ত বাণিজ্যিক জাহাজকে এস্কর্ট দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছেন।

তিনি বলেন, এই মুহূর্তে ব্রিটেনের সম্পদ এবং নাগরিকদেরকে রক্ষার জন্য প্রয়োজনীয় সমস্ত ব্যবস্থা নেবে সরকার। বেন ওয়ালেস জানান, তিনি এরই মধ্যে মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রী মার্ক এসপারের সঙ্গে কথা বলেছেন এবং চলমান উত্তেজনা কমানোর জন্য মার্কিন সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

এদিকে, বাগদাদের আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের কাছে মেজর জেনারেল কাসেম সোলায়মানিকে হত্যার পর লন্ডনের ডাউনিং স্ট্রিটে বহু মানুষ প্রতিবাদ সমাবেশ করেছেন। ওই সমাবেশে লেবারপার্টির শ্যাডো চ্যান্সেলর জন ম্যাকডোনেল প্রকাশ্যে মার্কিন হামলার নিন্দা করার জন্য ব্রিটিশ সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, মার্কিন সরকারকে উত্তেজনা কমানোর জন্য শুধু আহ্বান জানানই যথেষ্ট নয়।

Total Page Visits: 295 - Today Page Visits: 1

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Shares