নবীগঞ্জে শাখা বরাক নদী অবৈধ দখলদারের হাত থেকে উচ্ছেদ অভিযান শুরু

নবীগঞ্জ (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি: আজ থেকে শুরু হচ্ছে নবীগঞ্জের শাখা বরাক নদীর ‘অবৈধ দখল’ উচ্ছেদ অভিযান। পর্যায়ক্রমে বিভিন্ন মৌজার ১০১টি অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হবে। এতে এ নদী ফিরে পাবে তার হারানো যৌবন। যে যতটুকু জায়গা দখল করেছেন, সবাইকে উচ্ছেদ করা হবে। এ ব্যাপারে কাউকে ছাড় দেয়া হবে না বলে জানিয়েছে প্রশাসন।

উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করার জন্য পানি সম্পদ মন্ত্রনালয় থেকে ২৯ লাখ ৯৯ হাজার টাকা বরাদ্ধ করেছে। আজ সকাল ১০ টায় ‘হাট নবীগঞ্জ’ মৌজার চরগাঁও ব্রিজ থেকে অভিযান শুরু হবে। অভিযানে নেতৃত্ব দেবেন জেলা প্রশাসন কর্তৃক নিযুক্ত নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও নবীগঞ্জ উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) সুমাইয়া মমিন। সঙ্গে থাকবেন পানি উন্নয়ন বোর্ড ও সার্ভেয়াররা। সহযোগীতা করবেন থানা পুলিশ।

এদিকে গত রোববার প্রেস ব্রিফিংকালে জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ কামরুল হাসান মামলা সংক্রান্ত জটিলতার বিষয়ে তিনি বলেন, যেখানে সমস্যা থাকবে সেখানে মামলা নিস্পত্তি করেই উচ্ছেদ হবে। আর যেখানে সর্বোচ্চ আদালতের ডিক্রি রয়েছে সেখানকার যায়গা অধিগ্রহণ করে হলেও উচ্ছেদ করা হবে। অর্থাৎ সরকারী যায়গা পুনরায় ক্রয় করেও নদীর প্রবাহ নিশ্চিত করা হবে।

পানি উন্নয়ন বোর্ড কর্তৃক নবীগঞ্জ উপজেলার ‘হাট নবীগঞ্জ, শিবপাশা ও রিফাতপুর মৌজার অন্তর্গত শাখা বরাক নদীর তীরবর্তী চরগাঁও ব্রীজ হতে রিফাতপুর, বরাকনগর এলাকায় অবৈধ বসবাসকারীদের সরকারী ভূমিতে অবৈধভাবে গড়ে উঠা বসত ভিটি/ দোকানভিটি উচ্ছেদকল্পে নির্মাণকারীদের নামের তালিকা করে ইতিমধ্যে পানি উন্নয়ন বোর্ড, নবীগঞ্জ ভূমি অফিস ও পৌরসভার সার্ভেয়াররা ‘দখলকৃত স্থাপনাগুলো’ লাল রঙ দ্বারা চিহ্নিত করে রেখেছেন। যে যতটুকু জায়গা দখল করেছেন ততটুকুই উচ্ছেদ করা হবে।

এদিকে সচেতন মহল মনে করেন- সঠিকভাবে নদী দখল উচ্ছেদ করা হলে নদীটির যৌবন ফিরে পাবে। জেলা প্রশাসনের এই উদ্যোগকে সাধুবাদ জানিয়েছেন। এ ব্যাপারে নবীগঞ্জ উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) সুমাইয়া মমিন বলেন, হাটবাজার মৌজা থেকে শুরু হবে শাখা বরাক নদীর উচ্ছেদ অভিযান। শাখা বরাক নদীতে থাকা অবৈধ দখলদারদের উচ্ছেদ করতে সর্বস্তরের জনসাধারণের সহযোগীতা কামনা করেছেন তিনি।

/ মোসেউ

Total Page Visits: 254 - Today Page Visits: 1

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Shares