কুড়িগ্রামের ফুলবাড়িতে ঝড়ে ঘরবাড়ী লন্ড ভন্ড আহত- ৩

ফুলবাড়ী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি: কুড়িগ্রামের ফুলবাড়িতে ঝড়ে ঘরবাড়ী লন্ড ভন্ড আহত-৩।

কুড়িগ্রামের ফুলবাড়ীতে টর্নেডো ঝড়ে একটি পরিবারের বসতঘর, মুরগীর খামার, সেচ পাম্পের ঘর সহ মোট ৬টি টিনসেড ও ১টি পাকাঘর বিধ্বস্ত হয়েছে।

সোমবার সন্ধ্যায় সাড়ে সাতটার দিকে উপজলার বড়ভিটা ইউনিয়নের পশ্চিম বড়লই গ্রামের

মৃত ছমেদ উল্লার (চেংটু) ছেলে আজিজুল হকের বাড়ীতে এ ঝড় আঘাত হানে।

শার্শা হাসপাতালের নমুনা সংগ্রহ কেন্দ্রই ঝুঁকিপূর্ণ

বাড়ীর মালিক আজিজুল হক সহ স্থনীয়রা জানান, মাগরিবের নামাজের কিছুক্ষন পরে হালকা বৃষ্টির সাথে হঠাৎ দমকা বাতাস শুরু হয়।

লোকজন কিছু বুঝে উঠার আগেই মুহুর্তের মধ্যে বাতাস ঘুর্নিরুপ ধারন করে ৪টি টিনের বসতঘর ও

দুইটি টিনের মুরগীর খামার ঘর, ঘরের আসবাবপত্র বিছানাপত্র উড়িয়ে নিয়ে যায়।

অচিন্তপুর – রাজারগাঁওয়ে ডাম্পিং কাজের উদ্বোধন

এ সময় আজিজুলের বাড়ীর পাশে অবস্থিত নুরুজ্জামান মিয়ার সেচ পাম্পের পাকা ঘরটিও সম্পূর্ন বিধ্বস্ত হয়।

প্রানেরভয়ে ছুটাছুটি করতে গিয়ে টিন এবং বাঁশ কাঠের আঘাতে আজিজুল হকের স্ত্রী জাহেদা বেগম (৩০) মেয়ে অনামিকা (৮) ছেলে জাহিদ (৩) আহত হন।

কুড়িগ্রামের ফুলবাড়িতে আহতদের প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হলেও উড়ে যাওয়া ঘরের টিনগুলো মঙ্গলবার সকাল পযন্ত খুঁজে পাওয়া যায়নি বলে জানা গেছে।

বড়ভিটা ইউপি চেয়ারম্যান খয়বর আলী জানান, খবর পেয়ে রাতেই ঘটনাস্থলে পরিদর্শন করা হয়েছে।

ঝড়ে পরিবারটির প্রায় ৫ লক্ষাধিক টাকার ক্ষতি সাধিত হয়েছে।

/ হেলাল উদ্দিন

http://shopno-tv.com, http://thebanglawall.com
প্রতিনিধির তালিকা দেখতে ভিজিট করুন shopnotelevision.wix.com/reporters সাইটে।
http://shopno-tv.com/
http://shopno-tv.com/
http://shopno-tv.com/
Total Page Visits: 210 - Today Page Visits: 1

ফুলবাড়ী (কুড়িগ্রাম) করেসপনডেন্ট

# ৫০ নাম: মো: হেলাল উদ্দিন। helalfulkuri@gmail.com পিতার নাম: মো: আবুল কাশেম। মাতার নাম: মোছা: দুলালী বেগম। বর্তমান ঠিকানা: গ্রাম: চন্দ্রখানা , ডাকঘর : ফুলবাড়ী, উপজেলা: ফুলবাড়ী, জেলা: কুড়িগ্রাম। স্থায়ী ঠিকানা: গ্রাম: চন্দ্রখানা , ডাকঘর : ফুলবাড়ী, উপজেলা: ফুলবাড়ী, জেলা: কুড়িগ্রাম। জন্ন তারিখ: ২০/১০/১৯৯২ ইং আইডি নম্বর: ১৯৯২৪৯১১৮৪০০০০২৮৩ রক্তের গ্রুপ: A+ মোবাইল নম্বর: ০১৭৫০৯৫৬৩০৮। বিএ পাশ করোনা কালিন সময়ের জন্য এখনো সাটির্ফেকেট হাতে পাই নাই। বিভিন্ন অনলাইন পত্রিকায় ৩ বৎসর যাবদ সংবাদ প্রদান কাজে নিয়োজিত আছি।

Shares