আইপিটিভি নিয়ে অপপ্রচার : বিভ্রান্ত না হওয়ার আহ্বান

আইপিটিভি নিয়ে অপপ্রচার : বিভ্রান্ত না হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন সংশ্লিষ্ঠ সকল আইপিটিভি ওনার্স, আইপিটিভি ওনার্স এসোসিয়েশন ও সংশ্লিষ্ঠ কর্তৃপক্ষ।

তথ্য মন্ত্রণালয়ের নাম ব্যবহার করে আইপিটিভি চ্যানেলের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া সংক্রান্ত তারিখ ও স্বাক্ষরবিহীন একটি চিঠি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে

সম্প্রতি ছড়িয়ে পড়ে জনসাধারনকে চরম বিভ্রান্তিতে ফেলে দিয়েছে।

বিষয়টি পুরোটাই ভুয়া এবং মিথ্যা বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্ঠ সকল আইপিটিভি ওনার্স, আইপিটিভি ওনার্স এসোসিয়েশন ও সংশ্লিষ্ঠ কর্তৃপক্ষ।

তালিকায় ২৮টি চ্যানেলের নাম ও মালিকের নাম উল্লেখ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে প্রকাশ করে বিভ্রান্তি ছড়ানো হয়েছে।

এ বিষয়ে বুধবার (৪ আগস্ট) বিকেলে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ এসোসিয়েশনের মুখপাত্রকে বলেন,

তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয় থেকে এ ধরনের কোনো চিঠি ইস্যু করা হয়নি, চিঠিটি ভুয়া।

উল্লেখিত ২৮টি চ্যানেল, আইপিটিভি ওনার্স এসোসিয়েশন এর মাধ্যমে এহেন ন্যাক্কারজনক কর্মকান্ডের প্রতিবাদ জানিয়েছেন

২৮টি আইপিটিভি এবং মালিকের নাম সম্বলিত ভুয়া এই চিঠিতে বলা হয়, এই চ্যানেলগুলোর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য নির্দেশ দেওয়া হলো।

চিঠিতে বেশ কিছু বানান ভুল সহ অনেক আইপিটিভির নাম ও চ্যানেল ওনারের নাম মনগড়া ও

বিভ্রান্তিকর ভাবে উল্লেখ করা হয়েছে যা মন্ত্রণালয়ের নথির সাথে চরম অসংঙ্গতিপূর্ণ।

বিষয়টি নিয়ে আইপিটিভি ওনার্স এসোসিয়েশন এর সাথে যোগাযোগ করা হলে তারা জানান

কোনো অসাধু, প্রতারক ও অপেশাদার ব্যক্তি দেশের সুনামধন্য সব আইপিটিভি’র এবং সংশ্লিষ্ঠ মন্ত্রণালয়ের সুনাম ক্ষুন্ন করতেই হয়তো এমন অপকর্ম করেছে।

বিষয়টি সংশ্লিষ্ঠ কর্তৃপক্ষের গোচরে আনা হয়েছে, দ্রুতই আইডেনটিফাই করে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আরো পড়ুন: আইপিটিভি ওনার্স এ্যাসোসিয়েশনের গঠনতন্ত্র চূড়ান্ত ও কার্যালয় উদ্বোধন

মুখপাত্র বলেন এসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে যোগাযোগ করা হলে মন্ত্রণালয়ের পিআরও মীর আকরাম জানান,

‘নিশ্চিত করে বলতে পারি এ ধরনের কোন তালিকা তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয় থেকে প্রকাশ করা হয়নি।

কারো বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণেরও কোন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি। এ ধরনের অপপ্রচার কারা কি কারণে চালিয়েছে বিষয়টি খতিয়ে দেখা হবে।’

এর আগে তথ্যমন্ত্রী ড. হাসান মাহমুদ এমপির ব্যক্তিগত অফিসার মোঃ কায়সারুল আলমও এমন অপপ্রচারে কান না দেওয়ার জন্য আহ্বান জানিয়েছেন।

তথ্য মন্ত্রণালয়ের পাবলিক রিলেশন অফিসার মীর আকরাম বলেন, কে বা কারা এমনটি করছে তা খতিয়ে দেখা হবে।

এসোসিয়েশনের সভাপতি জনাব আতা উল্লা খান আতা বলেন, তালিকাটা মিথ্যা ও গুজবের অংশ মানসিকভাবে হয়রানি করবার একটা অপপ্রয়াস বলে মনে হয়।

মন্ত্রণালয়ে আমাদের সকলের শুদ্ধ নাম জানা আছে, দিলে শুদ্ধ নাম দিতো, সকলকে বিচলিত না হয়ে সাহস ও সততার সাথে ঐক্যবদ্ধভাবে অপপ্রচার ও ষড়যন্ত্র রুখতে হবে।

আইপিটিভি নিয়ে অপপ্রচার এটা প্রসব বেদনা, যা আইপি টিভি এর সুদিনের হাতছানি দিচ্ছে।

আরো পড়ুন: আইপিটিভি ওনার্স এসোসিয়েশনের ঈদ পুনর্মিলনী সংগীত সন্ধ্যা

অতীতের মত সাম্প্রতিক সময়েও ভার্চুয়াল প্লাটফর্ম ব্যবহারের মাধ্যমে সংগঠিত অপরাধ নিয়ন্ত্রণে র‌্যাব সাইবার মনিটরিং টিম সক্রিয় রয়েছে।

ভার্চুয়াল জগত ব্যবহারের মাধ্যমে মিথ্যাচার, বিভ্রান্তি ছড়ানো, অপপ্রচার রোধকল্পে বলিষ্ঠ ভূমিকা পালন করছে র‌্যাব।

বর্ণিত প্রেক্ষাপটে র‌্যাবের অভিযানে গত ২৯ জুলাই ২০২১ তারিখ রাজধানীর গুলশান-২ হতে হেলেনা জাহাঙ্গীর (৪৯) কে গ্রেফতার করা হয়।

আওয়ামী লীগে পদ হারানো ব্যবসায়ী হেলেনা জাহাঙ্গীরের বিরুদ্ধে ডিজিটাল মাধ্যমে ‘অপপ্রচার ও বিভ্রান্তিকর তথ্য ছড়ানোর’ অভিযোগ এনেছে র‌্যাব।

ভূইফোড় কিম্বা অবৈধ আইপিটিভি চ্যানেল নিয়ে মাঝেমধ্যে বিভিন্ন স্যাটেলাইট চ্যানেল কিম্বা পত্রিকায় নিউজ করা বিষয়ে জানতে চাইলে আইপিটিভি ওনার্স এসোসিয়েশন এর একজন সদস্য এই প্রতিবেদককে বলেন, সকলের জানা উচিৎ স্যাটেলাইট চ্যানেলগুলো স্যাটেলাইটে সম্প্রচারের জন্য লাইসেন্স প্রাপ্ত, অতিরিক্ত সুবিধা গ্রহণের জন্য বিটিভি, বিটিভি ওয়ার্ল্ড, সংসদ টেলিভিশনসহ দেশের সকল স্যাটেলাইট চ্যানেল তাদের সম্প্রচার স্যাটেলাইটের পাশাপাশি অন্যান্য আইপিটিভি গুলোর মত একই প্রযুক্তিতে আইপিটিভি হিসাবেও সম্প্রচার করছে, এটা তাহলে কোন আইনে! যারা এহেন নিউজ করছে কাদা ছুড়ে দিয়ে তারা নিজেরাই কি ইট মেরে পাটকেল খাচ্ছে না?

দেশের সকল গণমাধ্যমে ব্যাপকভাবে হেলেনা জাহাঙ্গীরের গ্রেফতারের সংবাদ প্রচারিত হয় এবং তখন থেকেই দেশে প্রচারে থাকা আইপিটিভিগুলো

আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে আসে। গ্রেফতারের পর হেলেনার মালিকানাধীন আইপিটিভি জয়যাত্রা টেলিভিশন বন্ধ করে দেয় র‌্যাব এবং

“আইপিটিভি ওনার্স এসোসিয়েশন” এর সাধারন সদস্য পদ থেকেও হেলেনা জাহাঙ্গীরকে তাৎক্ষণিক অব্যহতি দেয়া হয়।

হেলেনা জাহাঙ্গীর নিজেকে ”আইপিটিভি ওনার্স এসোসিয়েশন অফ বাংলাদেশ” এর সভাপতি বলে দাবী করতেন। অথচ সভাপতি হেলেনা জাহাঙ্গীর গ্রেফতারের পর

এখন পর্যন্ত উক্ত ”আইপিটিভি ওনার্স এসোসিয়েশন অফ বাংলাদেশ” এর কোন প্রতিক্রিয়া বা বিবৃতি লক্ষ করা যায়নি।

আরো পড়ুন: নড়াগাতি থানার নন্দিতা বিয়ের ৮ মাসের মাথায় লাশ হলেন

বর্তমানে দেশে ইন্টারনেট ভিত্তিক টেলিভিশন সম্প্রচারের কোনো নীতিমালা না থাকায় অনেকেই আইপিটিভি চ্যানেল চালু করে সকলেই অনুমোদনের অপেক্ষায় আছেন।

এখানে বৈধ কিম্বা অবৈধ কথাটি অপ্রাসঙ্গিক, তবে অবৈধ কর্মকান্ড পরিচালিত হলেই কেবল উক্ত আইপিটিভি চ্যানেল অবৈধ বলে বিবেচিত হতে পারে।

ভূইফোড় কিম্বা অবৈধ আইপিটিভি চ্যানেল নিয়ে মাঝেমধ্যে বিভিন্ন স্যাটেলাইট চ্যানেল কিম্বা পত্রিকায় নিউজ করা বিষয়ে জানতে চাইলে

আইপিটিভি ওনার্স এসোসিয়েশন এর একজন সদস্য এই প্রতিবেদককে বলেন, সকলের জানা উচিৎ স্যাটেলাইট চ্যানেলগুলো

স্যাটেলাইটে সম্প্রচারের জন্য লাইসেন্স প্রাপ্ত, অতিরিক্ত সুবিধা গ্রহণের জন্য বিটিভি, বিটিভি ওয়ার্ল্ড, সংসদ টেলিভিশনসহ

দেশের সকল স্যাটেলাইট চ্যানেল তাদের সম্প্রচার স্যাটেলাইটের পাশাপাশি অন্যান্য আইপিটিভি গুলোর মত একই প্রযুক্তিতে

আইপিটিভি হিসাবেও সম্প্রচার করছে, এটা তাহলে কোন আইনে! যারা এহেন নিউজ করছে কাদা ছুড়ে দিয়ে তারা নিজেরাই কি ইট মেরে পাটকেল খাচ্ছে না?

কেবলমাত্র ফেসবুক কিম্বা ইউটিউবে কন্টেন্ট তৈরী করে আপলোড দিলেই আইপিটিভি চ্যানেল হিসাবে বিবেচিত হয় না।

আইপিটিভি চালাতে অন্যান্য কারিগরীর সাথে প্রয়োজন হয় সুনিদ্রিষ্ট রিয়েল আইপির মাধ্যমে ভিডিও ষ্টিমিং।

অনেকেই ফেসবুক কিম্বা ইউটিউব চ্যানেলকে আইপিটিভি চ্যানেল হিসাবে ধরে থাকেন, যা কোনোভাবেই ঠিক নয়।

এই ভ্রান্ত ধারণা থেকে উত্তোরণের জন্য গণসচেতনতা প্রয়োজন বলে অভিজ্ঞজনরা মনে করেন এবং আইপিটিভি ওনার্স, আইপিটিভি ওনার্স এসোসিয়েশনকেই

এলক্ষ্যে দ্রুত এগিয়ে আসতে হবে বলে মত প্রকাশ করেন।

ফেসবুক কিম্বা ইউটিউব চ্যানেলকে আইপিটিভি চ্যানেল হিসাবে এক নিক্তিতে ওজন না করার জন্যও তারা পরামর্শ দেন।

তারা বলেন, একদিন আইপিটিভিই হবে দেশের প্রধান গণমাধ্যম।

উল্লেখিত ২৮টি চ্যানেল, আইপিটিভি ওনার্স এসোসিয়েশন এর মাধ্যমে এহেন ন্যাক্কারজনক কর্মকান্ডের প্রতিবাদ জানিয়েছেন।

/ দ্যা বাংলা ওয়াল

http://shopno-tv.com, http://thebanglawall.com
প্রতিনিধির তালিকা দেখতে ভিজিট করুন shopnotelevision.wix.com/reporters সাইটে।
http://shopno-tv.com/
http://shopno-tv.com/
http://shopno-tv.com/
Total Page Visits: 489 - Today Page Visits: 1

One thought on “আইপিটিভি নিয়ে অপপ্রচার : বিভ্রান্ত না হওয়ার আহ্বান

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Shares