মজিদের পঁচন ধরা পায়ের চিকিৎসা করাবেন বাদশা

মজিদের পঁচন ধরা পায়ের চিকিৎসা করাবেন বাদশা।

“বাবাগো আমার পাওডা কাইট্টা দেইন।বিষের যন্ত্রনায় বেঁচে থাকা বড় কষ্ট হচ্ছে।এমন আতর্নাদ করে কথাগুলো বলছিলেন আবদুল মজিদ (৭০)।

তিনি গাজীপুর জেলার শ্রীপুর পৌরসভার ২ নং ওয়ার্ডের দক্ষিণ বাগমারা ছাপড়া মসজিদের পাশেই ছোট একটি টিনের ঘরে বাস করেন।

দীর্ঘ ১৫ বছর আগে শ্রীপুরে অল্প জমি কিনে অনেক কষ্টে ছোট একটি টিনের ঘর তৈরি করেন তিনি। এখন
জীবন্ত এ মানুষটিকে পোঁকা কামরে কামরে খাচ্ছে।

রক্ত, পোঁজসহ পায়ের মাংস গলে গলে পড়ছে। দুর্গন্ধে স্ত্রী ছাড়া আর কেউ পাশে নেই তার । ভয়াবহ দুর্বিষহ মৃত্যু যন্ত্রণায় ছটফট করছে আব্দুল মজিদ।

পাশে বসে মহিদের স্ত্রী পা থেকে শত শত পোকা বের করছেন স্বামীকে একটু স্বস্তি দিতে।

জানা যায়, আব্দুল মজিদ গাজীপুরের কোনাবাড়িতে একটি পোশাক কারখানার জিন্সের প্যান্ট তৈরির কেমিক্যাল মিশ্রিত পানিতে কাজ করতেন।

হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়ায় তিনি চাকরি ছেড়ে বাড়িতে চলে আসেন। কিছু দিন যেতেই হাত পায়ে ঘাঁ দেখা দেয়। দিন দিন সে ঘাঁ বাড়তে থাকে।

এক সময় পায়ের ঘাঁ বাড়তে বাড়তে পঁচন ধরে যায়। তিনি জানান, একটি ছেলে তিনটি মেয়ে তাঁর সংসারে।

মেয়েদের বিয়ে হয়েছে। তবে তাঁদের কোনো খোঁজ খবর নেয়না। তাছাড়া ছেলেটি ছোট্ট। অন্যের দোকানে ৩ হাজার টাকা বেতনে কাজ করে।

তিনি কথা বলতে বলতে কান্না শুরু করে দেন। তিনি আতর্নাদ করে বলেন “বাবাগো আমার পাওডা কাইট্টা দেইন।বিষের যন্ত্রনায় বেঁচে থাকা বড় কষ্ট হচ্ছে।

আব্দুল মজিদের স্ত্রী বেগম তারা বিবি বুক চাপা কান্না কন্ঠে বলেন একটি পুত হেরে স্কুলে দিছিলাম। কিন্তু টেহার অভাবে পড়া বন্ধ।

কালিগঞ্জে ইউপি চেয়ারম্যান লোপাট করলো প্রকল্পের টাকা

মাইনসের দোহান(দোকান) কাম করে। তিনার ওষুধই কিন্তারি না বই খাতা কেমনে কিনাম ? এক সময় তিনি হাউমাউ কাঁদতে থাকেন।

তিনি বলেন মেয়েরা স্বচ্ছল কিন্তু কোনও খুঁজ খবর ই রাখে না। সারা দিনে বহুবার পচন থেকে পোকা বের করতে হয়। দুর্গন্ধ আর অনটনেই কাটে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ঘটনাটি প্রকাশ হলে শুক্রবার বিকেল ৩টার দিকে গাজীপুরের আওয়ামী লীগ নেতা আকরাম হোসেন বাদশা

আব্দুল মজিদের বাড়িতে গিয়ে এমন ভয়াবহ সংকটাপন্ন অবস্থা দেখে তিনি ব্যথিত হন।বৃদ্ধ মজিদের এমন অবস্থা দেখে তিনি চিকিৎসার ব্যবস্থা করেন।

তাৎক্ষণিক মানবিক মানুষ আকরাম হোসেন বাদশা গাজীপুর তাজউদ্দীন মেডিকেল কলেজে চিকিৎসার জন্য ব্যবস্থা করেন এবং নগদ আর্থিক সহায়তা প্রদান করেন।

কালিগঞ্জে ফেন্সিডিলসহ মাদক কারবারি আটক

এ সময় চিকিৎসা ও পারিবারিক খরচের জন্য নগদ টাকার পাশাপাশি চিকিৎসা চলাকালে যাবতীয় ঔষধ পাওয়ার ব্যবস্থা করে দেয় এবং

মজিদ মিয়ার দেখাশোনার জন্যও স্থানীয় দুইজন ব্যক্তিকে দ্বায়িত্ব দিয়ে যান।

স্থানীয় প্রতিবেশীরা জানান, পনের বছর আগে এ গ্রামে একটু জমি কিনে একটি টিনের ঘর তৈরি করে বসবাস করে আসছেন মজিদ মিয়া।

মজিদের পঁচন ধরা পায়ের তাদের ছোট্ট ঘরে ৩মেয়ে ও ১ছেলে আছে।

আকরাম হোসেন বাদশা গণমাধ্যমকর্মীদের বলেন আমি গিয়েছিলাম আবদুল মজিদের সাথে সাক্ষাৎ করতে।

উপস্থিত ভাবে তাকে সাধ্যমত আর্থিক সাহায্য করার চেষ্টা করেছি। ইনশাআল্লাহ সব ঠিক থাকলে তার চিকিৎসার যাবতীয় ব্যয়ভার বহন করবো।

তিনি আরও বলেন মানুষ মানুষের জন্য এটার আমার কাছে চিরন্তন সত্য বাণী। একজনের বিপদে পরলে অন্যজনকে সহযোগিতা করবে এমনটাই হওয়া উচিত।

এই বৃদ্ধ লোকটি আজ পা হারাতে বসেছে! কি নিদারুণ কষ্ট তার জীবন কাটাতে হচ্ছে তার।

এসময় আকরাম হোসেন বাদশার সাথে আরও উপস্থিত ছিলেন কলামিস্ট সাইদ চৌধুরীসহ প্রমুখ।

/ আতাউর রহমান সোহেল

http://shopno-tv.com, http://thebanglawall.com
প্রতিনিধির তালিকা দেখতে ভিজিট করুন shopnotelevision.wix.com/reporters সাইটে।
www.thebanglawall.com
দ্যা বাংলা ওয়াল, The Bangla Wall, www.thebanglawall.com
দ্যা বাংলা ওয়াল, The Bangla Wall, www.thebanglawall.com
www.thebanglawall.com
www.thebanglawall.com
Total Page Visits: 60 - Today Page Visits: 1

শ্রীপুর (গাজীপুর) করেসপনডেন্ট

# 43 Ataur Rahman SHOHEL E-mail: ataur.sohel88@gmail.com Cell: 01915218424, 01616351565 Education: B. Sc Name: Ataur Rahman SHOHEL Father’s Name: Md. yaiz Uddin Mother’s Name: Mst. Suria akter Permanent: Vill. & PO- Mawna, PS-Sreepur, Dist. Gazipur-1740 DOB: 26-01-1992 Blood Group: B+ National ID No.: 9113438932

২ thoughts on “মজিদের পঁচন ধরা পায়ের চিকিৎসা করাবেন বাদশা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Shares